গরুর জন্য জাতীয় পরিচয় পত্রের প্রস্তাব ভারতে

ভারত থেকে বাংলাদেশে গরু পাচার ঠেকাতে নাগরিকদের জাতীয় পরিচয়পত্রের মত (আধার কার্ড) গরুকেও পরিচয়পত্র দেয়ার প্রস্তাব সুপ্রিম কোর্টে দিয়েছে দেশটির  কেন্দ্রীয় সরকার। সোমবার বাংলাদেশে গরু পাচার ঠেকাতে অখিল ভারত কৃষি গো সেবা সংঘর এক আবেদনের শুনানির সময় কেন্দ্রীয় সরকার এই প্রস্তাব করে।

উল্লেখ্য, আধার কার্ড হচ্ছে ১২ ডিজিটের ‘অদ্বিতীয়’ নাম্বার যার মধ্যে নাগরিকের বায়োমেট্রিক ও জনমিতিক তথ্য লিপিবদ্ধ থাকে। অনেকটা বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্রের মতো। ভারতজুড়ে গোরক্ষকদের তাণ্ডবের মধ্যেই এই প্রস্তাবের কথা জানালো কেন্দ্রীয় সরকার।
অখিল ভারত গো সেবা সংঘ সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করা এক পিটিশনে বলে, বাংলাদেশ সীমান্ত দিয়ে ব্যাপকভাবে গরু পাচার হচ্ছে যার ফলে ভারতে গরুর সংখ্যা কমে যাচ্ছে। এই বিষয়ে শুনানির সময় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কমিটি প্রস্তাব করে, নাগরিকদের মত গরুরও একটি ‘অদ্বিতীয়’ আইডেন্টিফিকেশন নাম্বার প্রদান করা উচিত।
প্রতিবেদনে সুপারিশ করা হয়, গরুর পরিচয়পত্রে বয়স, জাত, লিঙ্গ, উচ্চতা, বর্ণ, শিং, লেজ ও বিশেষ চিহ্নর বর্ণনা থাকবে। ভারতজুড়ে গরুর পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক করার সুপারিশ করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশ সীমান্তে গরু পাচার বন্ধে জনগণের সক্রিয় সমর্থন আদায় করা প্রয়োজন।
Facebook Comments
,