মাশরাফীকে পেছনে ফেলার সুযোগ মোস্তাফিজের

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ইনিংসে সর্বোচ্চ তিন উইকেট পাওয়া একমাত্র বাংলাদেশি পেসার ছিলেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

চট্টগ্রামে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে তিন অজি ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে তার কৃতিত্বে ভাগ বসিয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান। আর একটি উইকেট পেলেই ফিজ ছাড়িয়ে যাবেন ম্যাশকে। অস্ট্রেলিয়ার হাতেও উইকেট জমা একটি।

মোস্তাফিজের চেষ্টা থাকবে চতুর্থ দিনের শুরুতেই সেটি তুলে নেয়ার, ‘আমি যখন খেলতে নামি, চেষ্টা তো থাকে ভাল কিছু করার। সাউথ আফ্রিকার সঙ্গে চার উইকেট পেয়েছিলাম। চেষ্টা থাকবে।’

২০১৫ সালে এই জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামেই নিজের অভিষেক টেস্টে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ৩৭ রানে ৪ উইকেট নিয়েছিলেন মোস্তাফিজ। ৫টি টেস্ট খেলা কাটার মাস্টারের এখন পর্যন্ত সেরা বোলিং ওটিই। সেই মাঠ বলেই হয়ত আত্মবিশ্বাসী তিনি।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সর্বোচ্চ চার টেস্ট খেলা মাশরাফী ২০০৩ সালে ডারউইনে ম্যাথু হেইডেন, ড্যারেন লেম্যান (অজিদের বর্তমান কোচ), মার্টিন লাভের উইকেট নিয়েছিলেন। ৭ উইকেট হারিয়ে স্কোরবোর্ডে ৪০৭ রান রেখে ইনিংস ঘোষণা করেছিল অজিরা। ওই ম্যাচে পরের ইনিংসে অবশ্য বোলিংয়ের সুযোগই টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক। বাংলাদেশ ম্যাচটা হেরে যায় ইনিংস ও ১৩২ রানের বড় ব্যবধানে।

চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে মোস্তাফিজ পেয়েছেন ম্যাট রেনশ, ডেভিড ওয়ার্নার ও ম্যাথু ওয়েডের উইকেট। মরা উইকেটে প্রাণ ফিরিয়ে স্পটলাইটে আসা ফিজের পরম আরাধ্যের উইকেট অবশ্য ওয়ার্নারেরটি। ১২৩ রানের ইনিংস খেলার পর তাকে সাজঘরে পাঠান ফিজ। পরে ফিরিয়েছেন ওয়েডকে। দ্বিতীয় দিনে অজি ইনিংসের প্রথম আঘাতটা দিয়েছিলেন মোস্তাফিজই। রেনশ’কে ফিরিয়ে।

Facebook Comments