রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জন্য ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে জাপান

আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে হওয়া সহিংসতার সময় থেকে প্রাণভয়ে পালিয়ে বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর জন্য সাড়ে ৭ লাখ মার্কিন ডলার জরুরি ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে জাপান সরকার।

ইউনিসেফের ফেসবুক পেজে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশে রোহিঙ্গাদের জন্য জাতিসংঘ শিশু তহবিল – ইউনিসেফের ‘ওয়াটার, স্যানিটেশন অ্যান্ড হাইজিন’ (ওয়াশ) এবং ‘চাইল্ড প্রটেকশন রেসপন্স’ – এ দু’টো জরুরি প্রকল্প জোরদার করার লক্ষ্যে ছ’মাস ধরে এ অর্থ সহায়তা দেয়া হবে।

বিবৃতিতে ইউনিসেফ বাংলাদেশ-এর প্রতিনিধি এডুয়ার্ড বেইগবেডার বলেন, শরণার্থী শিবির ও অস্থায়ী আবাসগুলোতে পানি, পয়ঃনিষ্কাশন এবং পরিচ্ছন্নতা পরিস্থিতির অবস্থা খুবই শোচনীয়। প্রতিদিন বাড়তে থাকা রোহিঙ্গাদের চাপে সেই শোচনীয় পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে। এর ফলে সেখানে থাকা শিশুদের মধ্যে বাড়ছে ডায়রিয়াসহ বিভিন্ন পানিবাহিত রোগের ঝুঁকি।

এছাড়াও রোহিঙ্গা শিশুরা যে ধরণের সহিংসতার মুখোমুখি হয়ে এখানে এসেছে, তার ট্রমা থেকে বের হওয়ার জন্য তাদের তাৎক্ষণিক সামাজিক-মানসিক ও বিনোদন-প্রশান্তিমূলক সহায়তার প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেন ইউনিসেফ প্রতিনিধি।

জাপান সরকারের দেয়া এই জরুরি অর্থ সহায়তা প্রায় ২৪ হাজার ৮০০ রোহিঙ্গা শিশু ও তাদের পরিবারকে চরম মানবিক বিপর্যয়ের মুখে সরাসরি এবং আরও ৬০ হাজার পরিবারকে পরোক্ষভাবে সাহায্য করার কাজে লাগানো হবে ওয়াশ প্রকল্পের অধীনে। তাদের জন্য নিরাপদ পানি, স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ও নারী-পুরুষের জন্য ভিন্ন ভিন্ন গোসলখানা নির্মাণ, হাত ধোয়ার ব্যবস্থাসহ পরিচ্ছন্ন থাকার বিভিন্ন সুবিধা এবং জরুরি সরঞ্জাম সরবরাহ করবে ইউনিসেফ।

এছাড়াও ওই অর্থ থেকে প্রত্যক্ষভাবে ৫ হাজার এবং পরোক্ষভাবে ২ লাখের মতো রোহিঙ্গা শিশুকে চাইল্ড প্রটেকশন সাপোর্টের অধীনে নানা ধরণের সহায়তা দেয়া হবে।

Facebook Comments